করোনা সব তছনছ করে দিয়েছে,সপ্তাহে দুই এক দিন কিছুটা বিক্রি হয় তাও আবার খুচরা

বসন্ত-বরণ, ভালোবাসা দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে প্রতি বছর এই সময়ে জমে উঠে ফুলের ব্যবসা। ব্যবসায়ীদের দাবির প্রতি বছর এই সময় যে ফুল বিক্রি হয়, এবছর তার কিছুই হচ্ছে না, করেনায় সব তছনছ করে দিয়েছে। সপ্তাহে দুই এক দিন কিছুটা বিক্রি হয় তাও আবার খুচরা, আর বাকি দিনগুলো বসে থাকতে হয়।

ফুল দোকানীরা বলেন, ঘরোয়াভাবে অনুষ্ঠান হওয়ার জন্যই তাদের ব্যবসায় এরকম ধ্বস নেমেছে। কর্মচারীরাদের বাঁচিয়ে রাখার জন্যই ব্যবসা চালিয়ে যেতে হচ্ছে। তা না হলে বর্তমানে যেই পরিস্থিতি তাতে এই মুহূর্তে ব্যবসা করা সম্ভব নয়; বলে মনে করেন ফুল ব্যবসায়ীরা।

রাজধানীর শাহবাগের ফুল ব্যবসায়ী রকি বলেন, মানুষ এখনও করণা আতঙ্কে রয়েছেন। এখনো স্কুল কলেজ গুলো খোলা হয়নি। যখন ইস্কুল কলেজ গুলো খোলা হবে তার দু-এক মাস পরে যদি স্বাভাবিক হয়। খুবই সংকটের মধ্য দিয়ে দিন কাটাচ্ছি। ২১ ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে ব্যবসা নিয়ে কেমন ভাবছেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, মানুষ এখন ঘর থেকে বের হচ্ছে না, এজন্য ভালো কিছু আশা করা যায় না। পরিস্থিতি কবে ভালো হয় সেটা আল্লাহই ভাল জানেন। কর্মচারীরাদের বাঁচিয়ে রাখার জন্যই আমাদের ব্যবসা চালিয়ে যেতে হচ্ছে। তা না হলে বর্তমানে যেই পরিস্থিতি তাতে এই মুহূর্তে ব্যবসা করা সম্ভব নয়।

কামরুজ্জামান কচি  বলেন, করোনা লক ডাউন এর পরে টুকটাক ব্যবসা চলছে। প্রতিবছরের সময়ের চেয়ে না হয় এবছর তার কিছুই হচ্ছে না। এখন সপ্তাহে একদিন বা দুইদিন কিছু বিক্রি হয়, আর বাকি দিনগুলো বসে থাকতে হয়। এখন বিয়ে অনুষ্ঠান ঘরোয়াভাবে হওয়াতে আয়োজন তেমন হয়না। ঘরোয়াভাবে অনুষ্ঠান হওয়াতে আমাদের ব্যবসাও তেমন ভালো নয়। তিনি বলেন, একুশে ফেব্রুয়ারিকে সামনে রেখে আশা করছি ব্যবসা একটু ভালো হবে।

Comments