চোরাকারবারী আটক ১৩ লাখ টাকার বাঘের চামড়াসহ

বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলায় বাঘের চামড়াসহ মো. গাউস ফকির (৪৫) নামে এক চোরাকারবারীকে আটক করা হয়েছে। উদ্ধারকৃত চামড়াটির বাজারমূল্য ১৩ লাখ টাকা। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গতকাল মঙ্গলবার রাতে উপজেলার রায়েন্দা-রাজৈর বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন এলাকায় বনবিভাগ ও র‌্যাবের একটি দল যৌথ অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করে।

উদ্ধারকৃত বাঘের চামড়াটি ৮ ফুট ১ ইঞ্চি লম্বা এবং ৩ ফুট ১ ইঞ্চি চওড়া। আটক গাউস ফকির উপজেলার দক্ষিণ সাউথখালী এলাকার বাসিন্দা মৃত আব্দুল রশীদ ফকিরের ছেলে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মোহাম্মাদ বেলায়েত হোসেন। তিনি বলেন, গাউস ফকিরের কাছে বাঘের চামড়া আছে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বনকর্মীরা ক্রেতা সেজে চামড়াটি ক্রয়ের জন্য গাউসের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। সবশেষ ১৩ লাখ টাকা চুক্তিতে চামড়াটি ক্রয়ের সিদ্ধান্ত হয়।

মোহাম্মাদ বেলায়েত হোসেন বলেন, ‘পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী শরণখোলা রেঞ্জ কর্মকর্তা জয়নাল আবেদীন ও ব্যার-৮ এর মেজর মিজানের নেতৃত্বে অভিযান পরিচালনা করা হয়। পরে চুক্তির টাকা বুঝিয়ে দিয়ে চামড়াটি নেওয়ার সময় তাকে বাসষ্ট্যান্ড এলাকা থেকে আটক করা হয়।’

নাম গোপন রাখার শর্তে দক্ষিণ সাউথখালী এলাকার এক সমাজসেবক বলেন, ‘গাউস ফকিরের বড় ভাইও দীর্ঘদিন ধরে বাঘ, হরিণ ও কুমিরের চামড়া পাচারের সঙ্গে জড়িত ছিল।’

Comments