জনগণ জনবিচ্ছিন্ন দল বিএনপিকে ভোট দেবে না, শামস্ পরশ

জনগণ জনবিচ্ছিন্ন দল বিএনপিকে ভোট দেবে না, শামস্ পরশ

আগামী নির্বাচনে বিএনপি-জামাত কোনো ষড়যন্ত্র ও নৈরাজ্য সৃষ্টি করলে তাদের কঠোরভাবে প্রতিহত করতে নেতা কর্মীদের আহ্বান জানিয়েছেন যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস্ পরশ। তিনি বলেছেন, বিএনপির নেতা খালেদা জিয়া আর তারেক জিয়া দণ্ডপ্রাপ্ত হওয়ার পর বিএনপির নেতা কে? কাকে নিয়ে তারা ক্ষমতায় যাবে? তাদের প্রস্তাবিত প্রধানমন্ত্রী কে? আসলে বিএনপি ভালোভাবেই জানে, তাদের কোনো নেতা নেই। নেতা ছাড়া কোনো রাজনীতি হয় না, নির্বাচনও হয় না। তাই বিএনপি নির্বাচনে যেতে চায় না তারা নির্বাচন ব্যবস্থাকে ভন্ডুল করতে চায়, তারা গণতান্ত্রিক ব্যবস্থাকে নস্যাৎ করতে চায়। আগামী নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিএনপি-জামাত যদি কোনো ষড়যন্ত্র ও নৈরাজ্য সৃষ্টি করে তাদের কঠোরভাবে প্রতিহত করবেন।

শনিবার বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে দলীয় কার্যালয়ের সামনে অনুষ্ঠিত ‘বিএনপি-জামাতচক্রের দেশবিরোধী ষড়যন্ত্র, নৈরাজ্য ও অপতৎপরতার’ বিরুদ্ধে যুবলীগের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

সমাবেশ শেষে এক বিশাল বিক্ষোভ মিছিল কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে শুরু হয়ে জিরো পয়েন্ট হয়ে নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে গিয়ে শেষ হয়।

বিএনপি কেন নির্বাচনে যেতে চায় না সেই ব্যাখ্যা দিয়ে পরশ বলেন, এই বিষয়টি পরিষ্কার। কিছু সুবিধাবাদীদের নিয়ে সামরিক শাসকের হাতে গঠিত বিএনপি প্রায় ১৫ বছর ক্ষমতার বাইরে থাকার ফলে সুবিধাবাদী এই বিএনপি নেতারা হতাশ। তারা সবাই জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। বিএনপি এদেশের মানুষকে কিছুই দেয়নি। বরং, শেখ হাসিনা বাঙালির ভাগ্য পরিবর্তন করে দিয়েছেন। দেশকে স্বল্পোন্নত থেকে উন্নয়নশীল দেশে পরিণত করেছেন।

‘তাই জনগণ বিএনপির সঙ্গে নেই। জনগণ এই জনবিচ্ছিন্ন দল বিএনপিকে ভোট দেবে না। এটি বিএনপি ভালো ভাবেই জানে। বাংলাদেশের সর্বোচ্চ আদালত ইতিমধ্যে খালেদা জিয়াকে নির্বাচনে অযোগ্য ঘোষণা করেছে।’

পরশ বলেন, তারেক জিয়া বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনাসহ পুরো আওয়ামী লীগ নেতৃত্বকে হত্যার জন্য ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা চালিয়েছিল। সেই গ্রেনেড হামলায় আইভি রহমানসহ ২৩ জন নেতা কর্মী নিহত হন। ২১ আগস্ট খুনের দায়ে তারেক জিয়া যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক। ঠান্ডা মাথার এই খুনি দুর্নীতির মামলায়ও ১০ বছরের সাজাপ্রাপ্ত এবং আরেক মামলায় দুই বছরের কারাদণ্ড সংবিধান ও আইন অনুযায়ী খুনি তারেক জিয়াও নির্বাচন করতে পারবে না।

যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিল বলেন, যুবলীগ একটি স্লোগান নিয়ে আজ রাজপথে দাঁড়িয়েছে, সেটা হলো দেশবিরোধী ষড়যন্ত্রকারী বিএনপি-জামাতের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াও যুবসমাজ। মার্চ মাস বাঙালি জাতির জীবনে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ মাস, এই মাসের ৭ মার্চ ঐতিহাসিক ভাষণ দিয়েছিলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং এ মাসেই স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছিলেন তিনি। আগামী ৭ মার্চ দেশব্যাপী বঙ্গবন্ধুর ভাষণ বাজিয়ে জানান দেব বঙ্গবন্ধুর বাংলায়, শেখ হাসিনার বাংলায় দেশবিরোধী শক্তি বিএনপি-জামাতের অবস্থান থাকতে পারে না।

তিনি বলেন, কোনো ধরনের ষড়যন্ত্র আর নৈরাজ্য সৃষ্টি করে লাভ হবে না। যেখানেই ষড়যন্ত্র করবেন সেখানেই আপনাদের দাঁত ভাঙা জবাব দেবে যুবলীগ।

সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মঞ্জুর আলম শাহিন, মো. মোয়াজ্জেম হোসেন, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক বিশ্বাস মতিউর রহমান বাদশা, সুব্রত পাল, সাংগঠনিক সম্পাদক জহির উদ্দিন খসরু, সোহেল পারভেজ, প্রচার সম্পাদক জয়দেব নন্দী প্রমুখ।

Comments