দেশীয় জুয়েলার্সরা যতদিন পর্যন্ত সক্ষমতা অর্জন না করতে পারে, ততদিন বিদেশি বিনিয়োগ নিরুৎসাহিত করার পক্ষে,বাজুস

গত ৩ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত বাজুস’র অতিরিক্ত সাধারণ সভায় (ইজিএম) এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয় বলে শনিবার (৬ ফেব্রুয়ারি) সংগঠনটির পক্ষ থেকে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

দেশীয় জুয়েলার্সরা যতদিন পর্যন্ত সক্ষমতা অর্জন না করতে পারে, ততদিন বিদেশি বিনিয়োগ নিরুৎসাহিত করার পক্ষে অবস্থান নিয়েছে বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি (বাজুস)। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণে রূপরেখা তৈরি করার নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাজুস সদস্যরা।

সভায় স্বর্ণের মূল্যের সঙ্গে ভ্যাট ও মজুরি যোগ করে পুনরায় মূল্য নির্ধারণ করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে। তবে কবে থেকে এ নিয়ম কার্যকর হবে সে বিষয়ে কোনো তথ্য জানানো হয়নি।

বাজুস আরও জানিয়েছে, ভ্যাটহার হ্রাস ও অসাধু ভ্যাট কর্মকর্তাদের দৌরাত্ম্য বন্ধে প্রধানমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করার সিদ্ধান্ত ইজিএমে কণ্ঠভোটে পাশ হয়েছে। এ বিষয়ে রূপরেখা নির্ধারণ করা হবে।

সভায় বাজুসের বিভিন্ন জেলা কমিটি ও কেন্দ্রীয় কমিটির নেতারা অংশ নেন। পাশাপাশি সাধারণ জুয়েলার্সরাও অংশ নেন এই ইজিএমে।

বাংলাদেশের বাজারে স্বর্ণের দাম সর্বশেষ পুনঃনির্ধারণ করা হয় গত ১৩ জানুয়ারি থেকে। ১২ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত বাজুসের কার্যনির্বাহী কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ১৩ জানুয়ারি থেকে ভালো মানের অর্থাৎ ২২ ক্যারেটের প্রতি ভরি (১১ দশমিক ৬৬৪ গ্রাম) স্বর্ণ ৭২ হাজার ৬৬৭ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। ২১ ক্যারেটের স্বর্ণ ৬৯ হাজার ৫১৭ টাকা, ১৮ ক্যারেটের স্বর্ণ ৬০ হাজার ৭৬৯ টাকায় ও সনাতন পদ্ধতির ভরিপ্রতি স্বর্ণ ৫০ হাজার ৪৪৭ টাকা করে বিক্রি হচ্ছে।

Comments