বাল্যবিবাহ রোধ স্কুল কারিকুলামে অন্তর্ভূক্ত করা হবে

বাল্যবিবাহ রোধ স্কুল কারিকুলামে অন্তর্ভূক্ত করা হবে

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন বলেছেন, বাল্যবিবাহ রোধে স্কুল কারিকুলামে এ বিষয় তুলে ধরতে উদ্যোগ নিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। যাতে বাল্যবিবাহ না দিলে সুফলটা কি হবে তা বাচ্চাদের সুন্দরভাবে বোঝানো যায়। তিনি বলেন, সরকার ন্যাশনাল হেল্প লাইন, ১০৯ ও ৯৯৯ চালু করেছে, এই সংখ্যাটি আবার প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্কুলের সকল বইয়ের পেছনে প্রিন্ট করে দেওয়া হয়েছে যেন যেখানে বাল্য বিবাহ হবে অথবা নারী নির্যাতন হবে তা জেনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া যায়। এবং এর সুফলও এখন পাওয়া যাচ্ছে। বাংলাদেশের মেয়েরা এখন নিজেরা নিজেদের বিয়ে বন্ধ করছে এবং এ জন্য আন্তর্জাতিক স্বীকৃতিও পাচ্ছে।

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, বাল্য বিবাহ সমাজের অভিশাপ। এটি নারীর বিকাশ ও স্বাবলম্বী হবার বড় একটি বাধা; যা দেশের অগ্রগতির অন্তরায়। দেশের অর্ধেক জনগোষ্ঠি নারী। অর্ধেক জনগোষ্ঠীকে পেছনে ফেলে কোনো দেশের সত্যিকার উন্নয়ন সম্ভব নয়। তাই সরকার সমাজকে বাল্য বিবাহের অভিশাপ থেকে মুক্ত করতে সরকারের বিরামহীন প্রয়াস অব্যাহত আছে।

কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ রেজাউল করিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন কুড়িগ্রাম-২ আসনের সংসদ সদস্য পনির উদ্দিন আহমেদ, রাজারহাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূরে তাসনিমসহ প্রমুখ।

Comments