বিএনপি নির্বাচনকে ভয় পায়,হাসান মাহমুদ

বিএনপি নির্বাচনকে ভয় পায়,হাসান মাহমুদ

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাসান মাহমুদ বলেছেন,বিএনপি নির্বাচনকে ভয় পায়। কারণ তাদের সন্ত্রাস আশ্রিত রাজনীতি এবং জ্বালাও পোড়াও রাজনীতির কারণে তারা জনগণ থেকে বিচ্ছন্ন হয়ে গেছে।এছাড়াও বেগম খালেদা জিয়া এবং তারেক রহমান দুজনই শাস্তিপ্রাপ্ত আসামী।যেহেতু তাদের নেতারা নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন না সে কারণে নির্বাচনে তাদের আগ্রহ নেই।সেজন্য তারা তাদের দলকেও নির্বাচন মুখি করতে চায় না।জনগণ হতে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়ায় তারা তাদের পরাজয় অনেকটা নিশ্চিত । তিনি বুধবার দুপরে ঠাকুরগাঁও জেলা পরিষদ(বিডিহলে) জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত বর্ধিত সভায় এসব কথা বলেন।

ড. হাসান মাহমুদ আরো বলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও রুহুল কুদ্দুস তালুকদার রিজভী সারাদিন শুধু আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে আবোল তাবোল কথা বলেন।রিজভী সাহেব নয়া পল্টনের দলীয় অফিসে বসে থাকেন।সেখানে খান ও সেখানে ঘুমান, সে কারণে তারা দেশের অবস্থা জানেন না।দলীয় অফিসে বসে থাকতে থাকতে তাদের মেজাজ খিটখিটে হয়ে গেছে।

তিনি মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে উদ্দেশ্য করে বলেন,তিনি মিডিয়ার সামনে বক্তব্য দিতে গিয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করতে যেসব অভিযোগ করছেন তা সঠিক নয়।কারণ সাম্প্রতিক রুশ -ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে সমস্ত পৃথিবীতে অনেকগুলো পণ্যের দাম বেড়েছে। বাংলাদেশেও কয়েকটি পণ্যের দাম বেড়েছে।বাংলাদেশ সরকার দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে।যাতে সাধারণ মানুষ কমমূল্যে পণ্য কিনতে পারেন সেজন্য টিসিবির আওতা বাড়ানো হয়েছে।কোটি মানুষকে কমদামে পণ্য দেওয়ার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। যেসব অসাধু ব্যবসায়ী ইচ্ছাকৃতভাবে পণ্যের দাম বাড়িয়ে ফায়দা লুটার চেষ্টা করছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মুহ.সাদেক কুরাইশীর সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য রমেশ চন্দ্র সেন,বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন শফিক,এড.হোসনে আরা লুৎফা ডালিয়া,এফভোকেট সফুরা বেগম রুমি,ঠাকুরগাঁও -২ আসনের এমপি আলহাজ্জ দবিরুল ইসলাম,,জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক দীপক কুমার রায় প্রমুখ।

বর্ধিত সভায় ঠাকুরগাও জেলার ৬ সাংগঠনিক থানার নেতৃবৃন্দ এবং সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের বিভিন্ন ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Comments