মুস্তাফিজকে হুমকি মানছে নিউজিল্যান্ড

মুস্তাফিজকে হুমকি মানছে নিউজিল্যান্ড

রোদ খুব চড়া নয়। তবে গরমের তীব্রতা অনেক। বিসিবি একাডেমি মাঠে হামিশ বেনেটের শরীর বেয়ে ঝরছিল ঘাম। মাঠের মাঝের উইকেটে ঘর্মাক্ত ৩৪ বছর বয়সী এ পেসারের বোলিং অনুশীলনটা তাই জমছিল না। গতকাল এই প্রতিবেদকের চোখে চোখ পড়তেই প্রশ্ন ছিল, ‘হামিশ অনেক গরম নিশ্চয়ই’, বোলিং রানআপে আসতে আসতে উত্তরে নিউজিল্যান্ডের এ অভিজ্ঞ পেসার জানালেন, ‘হ্যাঁ, অনেক গরম।’

২০১০ সালেও বাংলাদেশ সফর করেছিলেন হামিশ বেনেট। প্রায় এক যুগের ক্যারিয়ারে নিউজিল্যান্ডের হয়ে মাত্র ২৯ ম্যাচ খেলেছেন তিনি। যদিও বাংলাদেশ সফররত ব্ল্যাক ক্যাপসদের দ্বিতীয় সারির দলটাতে পেস বোলিংয়ে বড় নির্ভরতা তিনি।

দেশ জিতলে তো আমি জিতে যাই: মুস্তাফিজ

হামিশ বেনেটের মতোই সংগ্রাম করলেও গতকাল বিরুদ্ধ কন্ডিশনে প্রায় তিন ঘণ্টা মিরপুর স্টেডিয়ামে অনুশীলন করেছে নিউজিল্যান্ড দল। মাঠের লড়াইয়ে নামার আগে মুস্তাফিজুর রহমানের বোলিংকে হুমকি মনে করছেন ব্ল্যাক ক্যাপসদের কোচ গ্লেন পকনল। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৫ ম্যাচে ৭ উইকেট নিয়েছিলেন মুস্তাফিজ। গতকাল ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেছেন, কাটার মাস্টারকে চাপে ফেলার, আক্রমণের পরিকল্পনা করছেন তারা। মিরপুরে স্লো, লো বাউন্সের উইকেটই আশা করছে নিউজিল্যান্ড।

মুস্তাফিজের স্লোয়ার-কাটারে নাভিশ্বাস উঠে গিয়েছিল অস্ট্রেলিয়ানদের। বাঁহাতি এ পেসারের বিপক্ষে ভিন্ন কিছু করতে চায় ব্ল্যাক ক্যাপসরা। গ্যারি স্টিডের পরিবর্তে হেড কোচ হয়ে আসা গ্লেন পকনল গতকাল বলেছেন, ‘সে (মুস্তাফিজ) অসাধারণ বোলিং করেছে। যেভাবে সে নিজের ডেলিভারিগুলো করে তা দেখতে পারাও বিশেষ কিছু। আমি মনে করি, সে বাংলাদেশের অন্য খেলোয়াড়দের মতোই হুমকি।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমরা তার দিকে নজর রেখেছি এবং আলোচনা করেছি কীভাবে তাকে টার্গেট করা যায়। কিন্তু এসব খেলায় বাস্তবায়নের বিষয় রয়েছে। চেষ্টা করব তাকে চাপে ফেলতে এবং তার বিরুদ্ধে ভিন্ন কিছু করার চেষ্টা করব।’

Comments