সোনামসজিদ স্থলবন্দরে ৯ দিনে সাড়ে ৬ হাজার টন পেঁয়াজ আমদানি

সোনামসজিদ স্থলবন্দরে ৯ দিনে সাড়ে ৬ হাজার টন পেঁয়াজ আমদানি

সোনামসজিদ স্থলবন্দর দিয়ে গত নয়দিনে সাড়ে ৬ হাজার মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে। রবিবার (১৪ মার্চ) বিকেলে পানামা সোনামসজিদ পোর্ট লিংক লিমিটেডের ম্যানেজার (অপারেশন) কামাল হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, গত জানুয়ারি মাসে সরকার পেঁয়াজের ওপর শতকরা ৫ শতাংশ শুল্ক আরোপ করার পর জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে এ বন্দর দিয়ে প্রায় সাড়ে ৩’শ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি হয়। কিন্তু সরকার আবারও শতকরা ৫ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ১০ শতাংশ শুল্ক আরোপ করার পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ হয়ে যায়। চলতি মার্চ মাসের ৩ তারিখ পর্যন্ত পেঁয়াজ আমদানি আবারও বন্ধ হয়। ৪ মার্চ থেকে পুনরায় সীমিত আকারে পেঁয়াজ আমদানি শুরু হয়। রবিবার পর্যন্ত ভারত থেকে ২৯১টি ট্রাকে সোনামসজিদ স্থলবন্দরে প্রায় ৬ হাজার ৫’শ মেট্রিক টন পেঁয়াজ এসেছে বলে কাস্টমস ও পানামা সূত্রে জানা গেছে। দেশে উৎপাদিত পেঁয়াজের দাম বাজারে বৃদ্ধি পাওয়ায় সোনামসজিদ বন্দর দিয়ে সীমিত আকারে পেঁয়াজ আমদানি শুরু হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা জানান।

এক পেঁয়াজ আমদানিকারক দুরুল হাসনাত বাবুল জানান, ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি শুরু হওয়ায় বাজারে কিছুটা দেশি পেঁয়াজের দাম কমেছে। এভাবে পেঁয়াজ আমদানি অব্যাহত থাকলে রমজান মাসের আগেই পেঁয়াজের দাম আরও কমে যাবে বাজারে।

Comments