সৌদিতে স্বাস্থ্যতথ্য গোপন করলেই লাখ ডলার জরিমানা

সৌদিতে স্বাস্থ্যতথ্য গোপন করলেই লাখ ডলার জরিমানা

সৌদি আরবে স্বাস্থ্য ও ভ্রমণ সংক্রান্ত তথ্য গোপন করলেই গুণতে হবে এক লাখ ৩৩ হাজার ডলার জরিমানা। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে গতকাল সোমবার এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে সৌদি সরকার। বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ খবর জানিয়েছে।

এদিকে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত সৌদি আরবে নতুন করে পাঁচজন করোনা আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত করা হয়েছে। এ নিয়ে সৌদিতে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ২০ জনে দাঁড়িয়েছে। সৌদি সংবাদমাধ্যম আল আরাবিয়া এ খবর জানিয়েছে।

খবরে বলা হয়, নতুন করে করোনা আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে তিনজনই ইরান ও ইরাক থেকে এসেছেন। তাঁদের কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এ ছাড়া একজন করোনাভাইরাসের লক্ষণ বুঝতে পেরে নিজেই পরীক্ষা করান। এরপর তাঁর শরীরে করোনাভাইরাস ধরা পড়ে। তাঁকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এ ছাড়া ওই ব্যক্তি যাদের সংস্পর্শে এসেছেন, তাঁদের শনাক্ত করে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

অন্যদিকে, আক্রান্ত অপর ব্যক্তি মিশরের নাগরিক। তিনি সম্প্রতি মিসর থেকে সৌদি আরবে এসেছেন। তাঁকে শনাক্ত করার পর মক্কা নগরীতে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

এদিকে সৌদি আরবে শুক্রবারের জুমা নামাজের খুতবা ১৫ মিনিটের মধ্যে শেষ করতে বলা হয়েছে। এ ছাড়া ধর্মীয় কারণে মসজিদে খাবার ও পানীয় বিতরণে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে কর্তৃপক্ষ।

অন্যদিকে, প্রতিবেশী দেশ ছাড়াও ফ্রান্স, জার্মানি, তুরস্ক ও স্পেনসহ ১৪টি দেশের সঙ্গে ভ্রমণ স্থগিত করেছে সৌদি সরকার। এ ছাড়া কেউ ইরান ভ্রমণ করলে তাঁর বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার ঘোষণাও দেওয়া হয়।

এদিকে করোনাভাইরাস রোধে কার্যকর পদক্ষেপ, গবেষণা ও ভ্যাকসিন আবিষ্কারে সহায়তার জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে (ডব্লিউএইচও) এক কোটি মার্কিন ডলার অনুদানের ঘোষণা দিয়েছেন সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ। করোনাভাইরাস নিয়ে গবেষণার জন্য কোনো দেশের অনুদানের ঘোষণা এটিই প্রথম। সৌদি আরবের প্রভাবশালী পত্রিকা উকাজ গতকাল সোমবার রাতে এ খবর জানিয়েছে।

খবরে বলা হয়েছে, পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাস থেকে সুরক্ষায় আন্তর্জাতিকভাবে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার আহ্বানে সৌদি সরকার দ্রুত সাড়া দিয়েছে।

সৌদি আরবের রাজকীয় অধিদপ্তরের উপদেষ্টা এবং বাদশাহ সালমান মানবিক সহায়তা ও ত্রাণকেন্দ্রের প্রধান পৃষ্ঠপোষক আবদুল্লাহ বিন আবদুল আজিজ আর-রাবিয়া বলেন, ‘গুরুত্বপূর্ণ এ অনুদান মানবসেবার প্রতি সৌদি আরবের দায়বোধ থেকে করা হয়েছে। মানবসমাজে সৃষ্ট সমস্যার সমাধানের জন্য দেশটির সামর্থ্য ও অর্থকে কাজে লাগানোর বিষয়টি এর মাধ্যমে আবারও প্রতিফলিত হলো। এ ছাড়া মানব সমস্যার সমাধানে জাতিসংঘ এবং তাদের অন্যান্য সহযোগী সংস্থার সমসহযোগী হয়ে কাজ করতে দেশটি বদ্ধপরিকর।’

মরণঘাতী করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে পরবর্তী নির্দেশনার আগ পর্যন্ত সৌদি আরবে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এর আগে ২৭ ফেব্রুয়ারি দেশটিতে ওমরাহ ও পর্যটকদের নিষিদ্ধ করা হয়।

এরই মধ্যে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সারা বিশ্বে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে চার হাজার ১৭ জনে। এ ছাড়া শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা এক লাখ ১৪ হাজার ছাড়িয়েছে। এর মধ্যে চীনে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে তিন হাজার ১৩৬ জনে। দেশটিতে একদিনে মৃত্যু হয়েছে ১৭ জনের। এ ছাড়া আক্রান্তের সংখ্যা ১৯ জন বেড়ে পৌঁছেছে ৮০ হাজার ৭৫৪ জনে। নেদারল্যান্ডসভিত্তিক সংবাদমাধ্যম বিএনও নিউজ এ খবর জানিয়েছে।

Comments